“ভালো থেকো বাবা”

তানজিলা আক্তার লিজা

26

বাবা এবার কী আদর করে বলবে না?আয়, “খোকা যাই হাটে দামে মিললে বাপ বেটা মিলে গরু আনবো “। 

বাড়ির নিচে আসার পর বোনকে খুকী বলে ডেকে বলবে না? এই খুকী, “আয় দেখ তোর সেই ছোট ভাই আজ একলা এই গরুকে টেনে এনেছে “।

আম্মাকে ডেকে বলবে না? ওগো শুনছো, “খোকার জন্য গরুর কলিজা একদম কালা ভুনা করে দিবে আমার খোকা শক্তিশালী হবে “।
২০২0সাল- “ঈদুল আজহা”

মা: এবার যা হচ্ছে ব্যবসার হাল, গরু কি পারবে কিনতে? করোনার জন্য সব তো বন্ধ কিছু তো বিক্রি হলো না। তোমার হাতেও তো টাকা নেই তেমন এদিকে খোকা কী আনন্দ ভাবে সারাদিন বলে চলছে, “বাবা আর আমি যাবো হাটে গরু কিনে আনবো আর লোকে বলবে ভাই দাম কতো আর আমি উওর দিবো “

বাবা: খোকন যেহেতু বলেছে ইনশাআল্লাহ্ দেখবা আল্লাহ ওর ইচ্ছে পূরন করবে। তুমি চিন্তা করো না খোকনের মা।
হ্যাঁ বাবা সেদিন তোমার চারদিক অন্ধকার ছিলো ঠিকই কিন্তু আল্লাহ ভরসা বলে ঠিকই আমাদের গরু কিনা হয়েছিল। আমার ইচ্ছে ও পূরন হয়েছিল। রাস্তা দিয়ে আসতে যাইতে সবাইকে আমিই প্রশ্নের উওর দিয়েছিলাম।অনেক আনন্দ করে ঈদুল – আযহা ও পালন করেছি। সবই তো ঠিক ছিলো বাবা কিন্তু কেনো হঠাৎ করে আমাদের এই সুখী পরিবার থেকে তুমি আমাদের ছেড়ে চলে গেলে।
২০২০সাল, ডিসেম্বর।

বাবা: খোকনের মা আমার না করোনা পসিটিভ। ডাক্তার বলছে আমাকে তোমাদের থেকে আলাদা থাকতে। আমাকে ডাক্তার রা আর আসতে দিচ্ছে না বাসাই। খোকনের মা আমার মনে হয় আর আসা হবে না। তুমি কী একবারের জন্য আমার খোকা খুকি রে নিয়ে আসবা আমাকে দেখতে। আমি প্রান ভরে আমার বাচ্চা গুলো রে দেখবো। (কান্না ভেজা কন্ঠে)

মা: তুমি এসব কী বলছো? তোমার কিছু হলে আমরা কীভাবে থাকবো?তোমার খোকন খুকি কেমনে থাকবো? এসব আজে বাজে কথা কেনো বলছো তুমি?তোমার কিছু হবে না আল্লাহ আমাদের ওপর দয়া করবেন তুমি দেখবা। তুমি এমন ভেঙ্গে পরোনা খোকনের বাবা। আমি এখনি আসতাছি।

সেদিন আমরা ঠিকই গিয়েছিলাম বাবা তোমাকে দেখতে কিন্তু পাশান ডাক্তার গুলো আমাদের তোমার বুকে জড়িয়ে ধরার সেই সুযোগ দিলো না। একটা দেয়ালের এপার ওপার থেকে দশ মিনিট চেয়ে দেখলেন আমার বাবা আমাদের আর চোখের পানি ফেললেন যা আমি স্পষ্ট দেখছি।

২০২১সাল নতুন বছর আসলো সব নতুন হলো কিন্তু আমার বাবাই আর ছিলো না আমাদের মাঝে। আমার বাবা কে গ্রাস করে নিলো রাক্ষস করোনা। আমার প্রানের বাবাকে কেড়ে নিলো করোনা মহামারী। বাবার অনেক কষ্ট হয়েছিল যখন সে অক্সিজেন নিতে পারেনি।

এতোটা ঘাটতি থাকায় আমার প্রানের বাবা আত্মা চলে গেলো শান্তি তে ঘুমাতে। বছর ঘুরে ঠিক চলে আসলো আবার ঈদুল-আযহা। এবার আর কেও ডেকে বলবে না,”চল খোকা বাপ বেটা মিলো গরুর হাটে যাবো।”

তানজিলা আক্তার লিজা, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ফার্মেসি বিভাগ।

Previous articleঈদুল আজহায় ১২ দিনের ছুটিতে যাচ্ছে ডিআইইউ
Next articleটুঙ্গিপাড়ায় করোনা রোগীদের চিকিৎসায় ৫০ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিলেন প্রধানমন্ত্রী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here