স্যানিটাইজারও সুরক্ষিত নয় ! বাড়ছে চোখ-ত্বকের সমস্যা

6
HAND SANITIZER
HAND SANITIZER

স্যানিটাইজারও সুরক্ষিত নয় ! বাড়ছে চোখ-ত্বকের সমস্যা

কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউ যেভাবে তান্ডব চালাচ্ছে দেশে সেই কারণে আবার ২০২০ সালের মতোই ব্যাপক পরিমাণে বেড়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের চাহিদা। এক দিকে জীবাণুর সঙ্গে লড়াই করার জন্য যেমন এই স্যানিটাইজার অত্যন্ত প্রয়োজনীয় সামগ্রী হয়ে উঠেছে আমাদের জন্যে, তেমন অন্য দিকে এর কারণেই আবার বাড়ছে শিশুদের মধ্যে নানা শারীরিক সমস্যা। এক গবেষণাপত্র এমন কথাই জানিয়েছে।

সেই বিশেষ গবেষণায় বলা হয়েছে যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের কারণে শিশুদের চোখের এবং ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা মারাত্মকভাবে বেড়ে যেতে পারে। এই দাবি সত্যি ভয়ের। হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৭০ শতাংশ অ্যালকোহল উপস্থিত থাকে। এই মাত্রা অত্যন্ত ভয়ানক শিশুদের ত্বকের জন্যে। কোভিডের কারণে সকলেই বাধ্য হচ্ছে বারবার স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে। কিন্তু এটা মোটেই খুব স্বাস্থ্যকর নয়। বিশেষ করে, শিশুদের চোখ আর ত্বকের জন্য খুবই ক্ষতিকারক এই অভ্যেস।

এই গবেষণার সমীক্ষা অনুযায়ী, ২০১৯ সালে যত জন শিশুকে চোখে বিষক্রিয়ার কারণে চিকিৎসা করানো হয়েছিল, তার মধ্যে ১.৩ শতাংশের ক্ষেত্রেই বিষক্রিয়ার কারণ ছিল হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা একাধিকবার। কিন্তু ২০২০ সালে তা বেড়ে হয়েছে প্রায় ১০ শতাংশের কাছাকাছি যা চিন্তার বিষয়ে দাঁড়িয়েছে। শুধু চোখের নয়, এর জন্যে বাড়ছে ত্বকের নানা সমস্যাও। ত্বক বিশেষজ্ঞদের মতে, এখনও পরিসংখ্যানগত প্রমাণ কিছু তারা পাননি। কিন্তু ৭০ শতাংশ অ্যালকোহলের কারণে ত্বকের কিছু পরিবর্তন হবে সেটা তো স্বাভাবিকভাবেই মানুষ বুঝতে পারছে।

শিশুদের তালুর ত্বক যতটা নরম হওয়ার কথা সেটাও আর নেই। অনেক শিশুর আঙুলের ত্বকে ফাটল ধরছে বা চামড়া উঠছে। এটা সাধারণত সেই সব মানুষের ক্ষেত্রেই হয়, যারা সারা দিন প্রচুর জলের মধ্যে কাজ করেন বা বয়স্কদের মধ্যেও তা দেখা যায়। অনেক সময়ই শিশুরা নিজের খেয়ালে মুখে বা চোখে হাত দেয়। সেই সময় তাদের হাতে যদি স্যানিটাইজার লেগে থাকে, তা চোখে বা মুখে গেলে নানাভাবে বিষক্রিয়া হতে পারে। ত্বকে নানা ধরনের ব্যাকটেরিয়াও থাকে। তাই শিশুদের ক্ষেত্রে বিশেষ করে হ্যান্ড গ্লাভসের ব্যবহার করা উচিত।

সূত্র: bangalitalks

Previous articleছোটগল্প: মোল্লা বউয়ের হিল্লা বিয়ে
Next articleজাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ৪র্থ বর্ষের ভাইভা অনলাইনে গ্রহণের সিদ্ধান্ত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here