রেসীর দাম্পত্য জীবনের এক দশক

বিডিনিউজ ডেস্ক

23

ঢাকার চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মৃদুলা আহমেদ রেসী এখন সংসার ধর্ম পালন আর নিজের ব্যক্তিগত ব্যবসা নিয়ে বেশ ভালো আছেন।

স্বামী–সংসার–সন্তান–ব্যবসা সামলানোর মতো কঠিন কাজ সুনিপুণ ভাবে করার জন্যেই তিনি তার উজ্জ্বল চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার বিসর্জন দিয়েছেন। যদিও মাঝে মধ্যে তিনি অভিনয় করছেন।

তবে অভিনয়টা রেসীর কাছে এখন নিছকই শখ। সুন্দরী এই চিত্রতারকা ২২ জুন ( মঙ্গলবার ) তার সুখী দাম্পত্য জীবনের এক দশক পার করলেন। আজ থেকে দশ বছর আগে রেসী ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন চট্টগ্রামের সুদর্শন যুবক পান্থকে।

বিবাহিত জীবনের এক দশক পার করা নিয়ে রেসীর সঙ্গে কথা বলেন ছায়াছন্দ’র এই প্রতিবেদক। তার কাছে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি মনে করি প্রতিটা মেয়েরই সংসার ধর্ম পালনের একটা স্বপ্ন থাকে। আমারও তাই ছিল। আমরা অনেক গুরুজনকে দেখেছি দাম্পত্য জীবনে টুকিটাকি সমস্যা থাকলেও তারা সংসার ভাঙেননি।

চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেরই ইতিপূর্বে সংসার ভেঙেছে বলে আমার চেষ্টা ছিল সংসার টিকিয়ে রাখার। এই চেষ্টা আছে এবং আজীবন থাকবে। যদিও আমাদের চলচ্চিত্র নায়িকাদের বদনাম আছে – তারা সংসার করতে পারে না বা বিয়ে করলেও সংসার টিকবে না। কিন্তু এক্ষেত্রে আমার চিন্তা আলাদা। কারণ আমি কখনোই উচ্চাভিলাষী নই।

রেসী আরও বলেন, আমি সব সময় চেয়েছি মোটামুটি চলার জন্যে যতটুকু দরকার, সেটুকু নিয়ে পরিবারের সঙ্গে ভালো একটা জীবন কাটাতে। আর সংসার টিকিয়ে রাখার শত ভাগ চেষ্টা নিয়েই স্বামী পান্থ’র সঙ্গে দাম্পত্য জীবন পার করছি। আরেকটি কথা – প্রতিটা মানুষের মধ্যেই ভালো–মন্দ আছে। স্বামী–স্ত্রী দুটি মানুষ কখনোই একই রকমের হতে পারেন না।

তাছাড়া আমি মনে করি, স্বামী – স্ত্রীর দাম্পত্য জীবনে কলহ, মতের অমিল, ঝগড়া মনোমালিন্য হতেই পারে। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এগুলো যারা সযত্নে নিয়ন্ত্রণ করে চলতে পারেন, তারাই হয়তো সহজে দাম্পত্য জীবন পার করতে পারেন।

দীর্ঘ প্রতিক্রিয়ায় রেসী আরও বলেন, চারিদিকে মানুষের ডিভোর্সের খবর দেখে অনেক ভয় পাই। আল্লাহর কাছে দোয়া চাই – যেনো আমার মেয়ে দুইটার জন্য হলেও আমি আর পান্থ এক থাকতে পারি। এটা আজীবন থাকতে চাই। আমি এভাবেই সংসার করে যেতে চাই। আমি দোয়া চাই আমার দর্শক–ভক্ত আর পরিচিত সকলের।

রেসী জানান, তার এবং পান্থ’র পরিকল্পনা ছিল – তাদের বিবাহবার্ষিকীর এক দশক পূর্তি উপলক্ষ্যে বড় একটি অনুষ্ঠান করার। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে তারা সেই অনুষ্ঠান করেননি। তবে ঘরোয়াভাবে নিজেদের বিশেষ দিনটি উদযাপন করেছেন এই দম্পতি।

উল্লেখ্য, দাম্পত্য জীবনে রেসী–পান্থ দম্পতি প্রার্থনা ও প্রত্যাশা নামের দুই কন্যা সন্তানের মা–বাবা। রেসী হেয়ার অ্যান্ড বিউটি সেলুন এবং দি বারবার শপ নামের দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন রেসী–পান্থ দম্পতি।

Previous articleপরীমনির নতুন প্রেমিক: অমি না জিমি?
Next articleএকাত্তরের দিনগুলো

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here