মানুষের দেহে শূকরের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন

29

বিডিনিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে ডেভিড বেনেট (৫৭) নামে এক ব্যক্তির দেহে জেনেটিক্যালি মডিফাই করা শূকরের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। এর তিনদিন পরে তিনি ভাল সাড়া দিচ্ছেন বলে সোমবার জানিয়েছেন তার চিকিৎসকরা।

বিশ্বে এ ধরণের চিকিৎসা এটাই প্রথম। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা। তার দেহে এই হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড মেডিসিনের একদল চিকিৎসক।

জিন পাল্টে দিয়ে শূকরের দেহের হৃদপিণ্ড এর আগে মানুষের দেহে এভাবে আর প্রতিস্থাপন হয়নি। ফলে এই চিকিৎসাকে বড় এক সাফল্য হিসেবে দেখা হচ্ছে।

যদি ডেভিড বেনেট প্রকৃতপক্ষেই সুস্থ হয়ে ওঠেন, তাহলে বিজ্ঞানীরা আশা করছেন শূকরের অঙ্গ দিয়ে মানুষের শরীরে অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা যাবে। এতে দাতার সঙ্কট কেটে যেতে পারে।

ডেভিড বেনেটের শরীরে শূকরের এই হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করেছেন ড. বার্টলে গ্রিফিথ। তিনি বলেছেন, এটা এক যুগান্তকারী অপারেশন। অপারেশনে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে দাতার একটি সঙ্কট আছে।

এই পরীক্ষা আমাদেরকে সেই সঙ্কট সমাধানের খুব কাছে নিয়ে গেছে। হৃদযন্ত্রের জটিলতা নিয়ে ভুগছেন অনেক মানুষ। তাদের মধ্যে অসংখ্য মানুষ আছেন, যাদের হৃদযন্ত্র নষ্ট হয়ে গেছে। প্রতিস্থাপন জরুরি। তাদের জন্য দাতা পাওয়া যায় না।

ফলে এই গবেষণা সফলতা নিয়ে এলে সেই সমস্যার সমাধান হবে বলে আমরা আশা করি। তিনি আরো বলেন, এক্ষেত্রে আমরা অত্যন্ত সতর্কতা অবলম্বন করেছি। আমরা আশা করছি বিশ্বে প্রথম এমন অপারেশন ভবিষ্যতে রোগীদের জন্য আশার আলো নিয়ে আসবে।

ডেভিড বেনেটের বাড়ি যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে। তার বেঁচে থাকার জন্য একমাত্র বিকল্প দিয়েছিলেন চিকিৎসকরা হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন। অপারেশনের একদিন আগে তিনি বিবৃতি দিয়েছেন। বলেছেন, আমার সামনে দুটি বিকল্প। হয়তো মরে যেতে হবে। না হয় হৃদপিন্ড প্রতিস্থাপন করাতে হবে।

আমি বাঁচতে চাই। আমি জানি অন্ধকারের মধ্যে আমাকে এই বিকল্প বেছে নিতে হচ্ছে। তাই আমি শেষ অপশনটি বেছে নিতে চাই।

তার মত পাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) থেকে নতুন বছরের প্রাক্কালে জরুরি অপারেশনের অনুমতি অর্জন করেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসক দল। তারপরই তারা অপারেশনে হাত দেন।

ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোট্রান্সপ্লান্টেশন প্রোগ্রাম বিষয়ক প্রধান ড. মুহাম্মদ মহিউদ্দিন। জেনোট্রান্সপ্লান্টেশন বিভাগ হলো প্রাণির দেহ থেকে মানব দেহে অঙ্গ প্রতিস্থাপন বিষয়ক বিভাগ।

ড. মহিউদ্দিন বলেন, আমাদের ডাটা ব্যবহার করেছে এফডিএ এবং পরীক্ষা করেছে পরীক্ষাধীন শূকর বিষয়ক ডাটা। এরপরই তারা অনুমোদন দিয়েছে।

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে কমপক্ষে এক লাখ ১০ হাজার রোগী আছেন। তাদের অঙ্গ প্রতিস্থাপন করাতে হবে। প্রতি বছর এই অঙ্গ প্রতিস্থাপনের আগেই মারা যান কমপক্ষে ৬ হাজার মানুষ। এসব তথ্য মার্কিন সরকারের অর্গানডোনার ডট গভ-এর।

বেনেটকে শূকরের যে মডিফাইড হার্ট প্রতিস্থাপন করা হয়েছে তা সরবরাহ করেছে ভার্জিনিয়াভিত্তিক মেডিসিন বিষয়ক কোম্পানি রিভাইভিকোর।

অপারেশনের দিন সকালে প্রতিস্থাপনকারী টিম ওই শূকরের দেহ থেকে হার্টটি আলাদা করেন এবং তা প্রতিস্থাপনের পূর্ব পর্যন্ত একটি বিশেষ ডিভাইসের মধ্যে সংরক্ষণ করেন, যাতে তা সচল থাকে।

উল্লেখ্য, শূকরের অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আশা জাগিয়ে রেখেছে। কারণ, মানুষের অঙ্গের সঙ্গে মিল আছে শূকরের অঙ্গের। শূকরের দেহ থেকে আরো যেসব অঙ্গ নিয়ে মানুষের দেহে প্রতিস্থাপনের পরীক্ষা করা হয়েছে তার মধ্যে আছে কিডনি, লিভার ও ফুসফুস।

তবে প্রথম দিকে কিছুটা সমস্যা হলেও এখন শূকরের জিন পাল্টে এসব অঙ্গ উপযোগী করা হচ্ছে। ক্ষতিকর জিনকে সরিয়ে ফেলা হচ্ছে অথবা তা এডিটিং করে পাল্টে ফেলা হচ্ছে।

Previous articleবাংলাদেশ আর পিছিয়ে যাবে না, বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে: প্রধানমন্ত্রী
Next articleরায়পুরে আল্লাহর ৯৯ নামের মিনার নির্মাণ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here