বাদাম বাদাম দাদা কাঁচা বাদাম, আমার কাছে নাই গো বুবু ভাজা বাদাম: কে বানিয়েছেন জানেন?

39

বিশ্বজুড়ে ভাইরাল ‘বাদাম গান’। আর এই ‘বাদাম গান’-এর স্রষ্টা বিদেশ বিভুঁইয়ের কেউ নন। তিনি রাঢ় বাংলার-ই এক বাদাম বিক্রেতা। নাম ভুবন বাদ্যকর। ইতিমধ্যেই সারা বিশ্বে কয়েক মিলিয়ন মানুষ এই ‘বাদাম গান’ শুনেছেন, দেখেছেন।

এমনকি রিমিক্সও বানিয়েছেন। ভাইরাল হয়ে যাওয়া সেই ‘বাদাম গান’-এর স্রষ্টা ভুবন বাদ্যকরের নিবাস বীরভূমের দুবরাজপুর ব্লকের অন্তর্গত লক্ষ্মীনারায়ণপুর পঞ্চায়েতের কুড়ালজুরি গ্রামে।

“বাদাম বাদাম দাদা কাঁচা বাদাম, আমার কাছে নাই গো বুবু ভাজা বাদাম…” এই গানের কথায় সুরে মজেননি এমন মানুষ হাতে গোনা। ‘মানিকে মাগে হিথে’-এর মতোই আট থেকে আশি বুঁদ এই ‘বুবু ভাজা বাদাম’-এর ছন্দে। ফেসবুক, ইউটিউব, রিলস খুললেই বেজে উঠছে এই গান।

স্বাভাবিকভাবেই নিজের লেখা, সুর দেওয়া ও গাওয়া ‘বাদাম গান’ এহেন বহুল প্রশংসিত হতেই খুশির ছোঁয়া বাদাম বিক্রেতা ভুবন বাদ্যকরের গলায়। বললেন, “মোবাইলে আমার গান দেখছে সবাই। দেখা হলেই সবাই এসে আমার গানের প্রশংসা করে যাচ্ছে। ভালোই লাগছে।”

গানের কারণে ইতিমধ্যেই সেলেব্রিটি তিনি। এলাকাবাসী সারাক্ষণ-ই ভিড় জমাচ্ছেন তাঁর বাড়িতে। তিনি যখন যে গ্রামে বাদাম বিক্রি করতে যাচ্ছেন, সেখানেই তাঁকে দেখতে ভিড় করে আসছেন সাধারণ মানুষ।

নিজের ভাইরাল কীর্তি নিয়ে ভুবন বাদ্যকর সহাস্যে বললেন, “হ্যাঁ, আমিই লিখেছি, আমারই তৈরি। আমারই সুর, আমারই গলা। চিন্তাভাবনা করতে করতেই করেছি।” তিনি জানান, “এর আগে বাউল গান করেছি।

এখন আমি ঝাড়খণ্ড থেকে বাংলার বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে ঘুরে বাদাম ফেরি করি। সেই বাদাম কী করে বিক্রি করা যায়, সেই থেকেই ভাবনাচিন্তা। তারপরই গান লেখা।”

ভুবন বাদ্যকর জানালেন, “গান শুনে বহু মানুষই বাদাম কিনতে আসছেন। কেউ ৫ টাকার বাদাম কিনছেন, কেউ ১০ টাকার। বিক্রিবাটা ভালোই চলছে।” আরও জানালেন, আগে পায়ে হেঁটে বাদাম ফেরি করতেন। কিছুদিন সাইকেলেও করেছেন।

এখন ১৫০০০ টাকা দিয়ে একটি ‘গাড়ি’ কিনেছেন। তাতে করেই বাদাম ফেরি করছেন। সূত্র: জিনিউজ

Previous articleআপনার ফোন নম্বর কি কেউ ব্লক করে দিয়েছেন?
Next articleরাঙামাটিতে জেএসএস’র শীর্ষ সন্ত্রাসীকে গুলি করে হত্যা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here