প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ শীর্ষ কিছু পদে শিগিগরই নতুন নিয়োগ

12

অনলাইন ডেস্ক:  এখন যেসব কর্মকর্তা নিয়োগ পাবেন, তাদের অধিকাংশের চাকরির মেয়াদ আরো দুই বছর রয়েছে। তাদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ হবে মাঠ প্রশাসনের সঙ্গে কেন্দ্রের সমন্বয় সাধন বা দূরত্ব দূর করা।

কারণ ইতিমধ্যে মাঠ প্রশাসনের সঙ্গে কেন্দ্রীয় প্রশাসনের বেশ দূরত্ব বা অনুশাসন না মানার অনেক নজির লক্ষণীয় হয়ে উঠেছে। এ কথা প্রশাসনের শীর্ষমহল স্বীকার করে নিয়েছে।

প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ শীর্ষ কিছু পদে শিগিগরই নতুন নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। সিভিল প্রশাসনের চার পদ ও পুলিশের আইজি পদেও নিয়োগ হবে নতুন বছরের জানুয়ারির মধ্যে। এসব পদের সম্ভাব্য কর্মকর্তার নিয়োগ কার্যত চূড়ান্ত। এখন সরকারি আদেশ জারির অপেক্ষা। অবশ্য পদশূন্যতার কারণেই এসব নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।

সরকারের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, জনপ্রশাসন ও জননিরাপত্তা বিভাগের সচিবের পদগুলো গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া পুলিশের সর্বোচ্চ মহাপুলিশ পরিদর্শকের (আইজিপি) পদটিকেও গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করা হয়।

মাঠ প্রশাসনের নিয়ন্ত্রক মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, অভ্যন্তরীণ প্রশাসন মুখ্য ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব, নির্বাচন কমিশনের চাহিদা মোতাবেক কর্মকর্তা পদায়নে জনপ্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় জননিরাপত্তা বিভাগের সচিবের পদটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তবে কার্যত পুলিশ ও র‍্যাবের নিয়ন্ত্রণ থাকে আইজির হাতে। এক্ষেত্রে অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) পদের গুরুত্বও অনেক।

জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাঠ প্রশাসনের  গুরুত্বপূর্ণ পদ। স্থানীয়ভাবে উন্নয়ন সমন্বয় ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা সমন্বয়ের ক্ষেত্রে তাদের দায়িত্ব ও গুরুত্ব রয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অধীনে থাকা মাঠ প্রশাসন সাম্প্রতিক সময়ে ক্ষেত্রবিশেষে কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণছাড়া হয়ে পড়েছে এমন পরিবেশ বিরাজমান। এ অবস্থায় শীর্ষপদে নবাগতদের মাঠ প্রশাসনের শৃঙ্খলা ফেরানো জরুরি হবে।

সূত্রমতে, শূন্যজনিত কারণে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের পদটি পূরণ করার প্রয়োজন দেখা দিয়েছে। বর্তমান মুখ্য সচিব ড. আহমেদ কায়কাউসের চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

তাকে ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। তিনি এ মাসের শেষার্ধে বা আগামী মাসের প্রথমার্ধে দেশ ত্যাগ করতে পারেন।

ঐ পদে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বর্তমান সিনিয়র সচিব তোফাজ্জাল হোসেনের নিয়োগ চূড়ান্ত করায় স্বাভাবিকভাবেই পদটিও শূন্য হচ্ছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-১ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের নিয়োগও চূড়ান্ত বলে জানা গেছে।

Previous articleচলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিপুণের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই
Next articleবিদেশে পাচার হওয়া অর্থ ফেরত আনার ক্ষমতা দুদকের নেই: দুদক চেয়ারম্যান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here