হার্ট ভাল রাখতে বর্ম কফি

11

অনলাইন ডেস্ক: হার্ট ভাল রাখার জন্য নানারকম পদক্ষেপ করে থাকি আমরা। কখনও ডায়েটে বদল আনা হয়, কখনও আবার শরীরচর্চার জন্য় বের করতে হয় আলাদা সময়। এবার ভরসা করা যেতে পারে কফির উপরেও। তেমনই জানাচ্ছেন গবেষকরা। 

কী দাবি?
প্রতিদিন  দুই থেকে তিন কাপ কফি (coffee) খেলে তা হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী বলে দাবি করা হয়েছে। 

কোন গবেষণা?
আমেরিকান কলেজ অফ কার্ডিওলজির (american college of cardiology) ৭১তম বার্ষিক অনুষ্ঠানে প্রকাশ করে একটি গবেষণাপত্রে এই দাবি করা হয়েছে।  কার্ডিওভাস্কুলার (cardiovascular) সমস্যা রয়েছে অথবা নেই–সবার জন্য উপকারী নির্দিষ্ট পরিমাণের কফি (coffee)।

কী বলছেন গবেষক?
গবেষণাপত্রের বরিষ্ঠ লেখক (senior author) পিটার এম কিস্টলার (Peter M. Kistler) অস্ট্রেলিয়ার আলফ্রেড হসপিটাল (Alfred hospital) এবং বেকার হার্ট ইন্সটিটিউট (Baker Heart Institute)-এর অ্যারিথমিয়া রিসার্চের প্রধান (Head of arrhythmia)। পিটার বলছেন, ‘কফি হৃদযন্ত্রের গতি বৃদ্ধি করে।

সেই কারণেই হৃদরোগের সমস্যা রয়েছে এমন ব্যক্তিদের কফি খেতে মানা করা হতো। কিন্তু তথ্য বলছে কফি খাওয়া বন্ধ করা উচিত নয়। স্বাস্থ্যকর ডায়েটের অংশ হিসেবে কফি রাখা উচিত। আমরা দেখেছি কফিপানের অভ্যেস কোনও ক্ষতি করে না। বরং হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য ভাল হতে পারে।’

কী ভাবে হয়েছে গবেষণা?
UK Biobank-এর তথ্য ব্যবহার করা হয়েছে। এই তথ্যভান্ডারে (databank) বিপুল সংখ্যক নাগরিকের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্য় মজুত করে রাখা হয়। দিনে কতবার কফি খাওয়া হয় তার ভিত্তিতে একাধিক ক্যাটাগরি করেছিলেন গবেষকরা।

কফিপানের অভ্যাসের সঙ্গে অ্যারিথমিয়া (arrhythmia) অর্থাৎ হৃদযন্ত্রের গতির সমস্যা, কার্ডিওভাস্কুলার (cardiovascular) সংক্রান্ত সমস্যা যেমন করোনারি আর্টারি ডিজিজ-এর সম্পর্ক বা যোগসূত্র খোঁজার চেষ্টা করেছেন।

কাদের উপর গবেষণা?
দু ধাপে গবেষণা হয়েছে। প্রথমে ৩ লক্ষ ৮২ হাজার ৫৩৫ জনের উপর গবেষণা হয়েছে, যাদের হৃদযন্ত্র সংক্রান্ত কোনও সমস্যা নেই। প্রায় দশ বছরের তথ্যের উপর ভিত্তি করে গবেষণা হয়েছে। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে অর্ধেক মহিলা ছিলেন। পরের ধাপে ৩৪ হাজার ২৭৯ জনের উপর সমীক্ষা হয়েছে, যাদের আগে থেকেই কার্ডিওভাস্কুলার রোগ ছিল।   

গবেষকরা জানাচ্ছেন:
প্রতিদিন ২ থেকে তিন কাপ কফি খেলে করোনারি হার্ট ডিজিজের ঝুঁকি (risk) ১০ থেকে ১৫ শতাংশ কমে যায়। কমে যায় হার্ট অ্যাটাকের (heart attack) সম্ভাবনাও। যাদের হৃদরোগ রয়েছে বা অ্যারিথমিয়া রয়েছে তাঁদের ক্ষেত্রেও দিনে এক থেকে দুকাপ কফি পান করলে মৃত্যুর ঝুঁকি অনেকটাই কম থাকে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। 

গবেষকরা জানাচ্ছেন, কফির মধ্যে ক্যাফাইন তো থাকেই, তার সঙ্গেই আরও বহুরকমের জৈব যৌগ থাকে যা শরীরের জন্য উপকারী। তবে প্রয়োজনের অতিরিক্ত কফি খাওয়া উচিত না।

সেকথাও স্পষ্ট জানাচ্ছেন তাঁরা। যাঁদের উপর সমীক্ষা ও গবেষণা হয়েছে তাঁরা মূলত শ্বেতাঙ্গ। অন্য জাতি বা জনগোষ্ঠীর ক্ষেত্রেও একই রকম ফল পাওয়া যাবে কিনা তার জন্য আরও পরীক্ষা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

ডিসক্লেইমার : কপিতে উল্লেখিত দাবি, পদ্ধতি পরামর্শস্বরূপ। প্রয়োজনীয় চিকিৎসাপদ্ধতি/ডায়েট ফলো করার জন্য অবশ্যই বিশেষজ্ঞ / চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন ও সেইমতো নিয়ম মেনে চলুন।

ADP

Previous article১১৬ বছর আগে তৈরি হয়েছিল বিশ্বের প্রথম টি-শার্ট
Next articleওষধিগুণের জন্য প্রাচীন কাল থেকেই  আয়ুর্বেদে ব্যবহার হয়েছে পেঁপে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here