মাতৃদুগ্ধ বিক্রি করে সংসারের খরচ, সোশ্যাল মিডিয়াতে তোলপাড়

14

মায়ের ভালবাসার বিকল্প সারা পৃথিবী জুড়ে আর কিছুই নেই৷ শিশুকে জীবনের গতিপথে একজন সুস্থ ও স্বাভাবিক মানুষ হিসাবে গড়ে তুলতে মায়ের দুধের বিকল্প নেই৷ কিন্তু মায়ের মমতাও এখন বিক্রি হচ্ছে? বেশ কিছু দশক ধরে গর্ভ বিক্রির ঘটনা আগেই ঘটেছে৷ কিন্তু এবার মাতৃদুগ্ধ বিক্রি ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে৷

আমেরিকার ফ্লোরিডায় এক মহিলা তাঁর দুধ বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা রোজগার করছেন৷ ৩২ বছর বয়সী ওই মহিলা নিজের দুধ বিক্রি করার ইচ্ছা প্রকাশ করে অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন ৷

জুলি ডেনিস নামের ওই মহিলা গত বছর সারগেসির মাধ্যমে এক শিশুর জন্ম দিয়েছিলেন৷ শিশুর জন্ম দিয়ে একজনের থেকে লক্ষাধিক টাকা রোজগার করেছিলেন৷ এইবার তিনি নিজের দুধ বিক্রি করতে শুরু করেছেন৷

এই ভাবে কয়েক মাস ধরে লক্ষাধিক টাকা রোজগার করেছেন তিনি৷ শিশুর জন্মের ৬ মাস পরে আর মাতৃদুগ্ধের প্রয়োজন হয়না৷ কিন্তু তখনও প্রয়োজন মত দুধের যোগান থাকায় সেই দুধ বিক্রি করতে শুরু করেছিলেন ওই মহিলা৷ ডেনিস একটি প্রাথমিক স্কুলের কর্মী৷

সারগেসি সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরে মায়েদের সমস্যা দেখা যায় যে সন্তানকে দুধ দেওয়া বেশ সমস্যাকর হয়ে থাকে৷ ঠিক মত দুধের যোগান থাকেনা৷ ডেনিসের মতে এটি একটি চাকরির মত৷ তবে এই ধরনের কাজ করে অর্থ উপার্জন করাতেই নানান রকমের প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে৷ সারগেসির মাধ্যমে দুই সন্তানের জন্ম দিয়েছেন ডেনিস৷

তাঁর গর্ভাশয়ের অবস্থা অত্যন্ত ভাল দুধের পরিমাণও ঠিকঠাক আছে৷ ওই মহিলা জানিয়েছেন সম্পূর্ণ রূপে পয়সা রোজগারের জন্য নয় কিন্তু তিনি স্থির বিশ্বাস কিন্তু এই টাকা তাঁর পরিবারের ক্ষেত্রে যথেষ্ট৷

ডেনিস জানিয়েছেন দুধ কেনার সময়ে অনেকেই দুধের দামে ছাড়ের জন্য অনুরোধ করেন৷ অনেকেই মনে করেন বিনামূল্যের দুধে আর কি টাকা নেওয়া যায়? অনেকেই জানিয়েছেন দুধের জন্য পাম্পে পরিবারের থেকে ঘণ্টা দূরে থাকতে হয়৷ ডেনিস জানিয়েছেন প্রতি মাসে ১৫,০০০ লিটার দুধ ফ্রিজে স্টোর করে সেটি আইস প্যাকে রেখে সারা দেশে পাঠানো হয়৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here