‘পাওনাদারের’ টাকা আদায়ে রেস্তোরাঁয় হাজারও তেলাপোকার তাণ্ডব!

বিডিনিউজ ডেস্ক

22

ধারণা করা হচ্ছে, রেস্তোরাঁ মালিক ও স্থানীয় গুন্ডাদের মধ্যে টাকা নিয়ে বিবাদের প্রেক্ষিতে গুন্ডারা তেলাপোকাগুলো এনে ছেড়ে দিয়েছে।

সম্প্রতি তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেই শহরের একটি রেস্তোরাঁয় খাওয়ার সময় আতঙ্কিত হয়ে ওঠেন লোকজন। হুট করেই তারা দেখেন, মেঝেতে কিলবিল করছে হাজারও তেলাপোকা। আর মুহূর্তেই চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে রীতিমতো ‘তাণ্ডব’ চালাচ্ছে!

জানা যায়, মুখোশধারী দুই ব্যক্তি রেস্তোরাঁ প্রাঙ্গণে ওই তেলাপোকাগুলো ছেড়ে দিয়ে গেছেন।

ঘটনাটি গত মঙ্গলবারের (৪ মে)।  দুজন মুখোশধারী ব্যক্তি এক হাজার তেলাপোকা ভর্তি দুটি বড় ব্যাগ হাতে শহরের জি হাউজ তাইপেই রেস্তোরাঁয় ঢুকেন। তারপর তারা তেলাপোকাগুলোকে দোতলায় রিসিপশন ডেস্কের নিচে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যান।

এরপর রেস্তোরাঁর মেঝে, আসবাবপত্র ও দেয়ালে তেলাপোকাগুলো ঘুরে বেড়াতে থাকে। সেসময় অনেক কাস্টমারই খাবার খাচ্ছিলেন। হঠাৎ করে হাজারও তেলাপোকা দেখে তারা আতঙ্কিত হয়ে যান।

সেই মুহূর্তে তাদের মধ্যে তাইপেই পুলিশ বিভাগের কমিশনার চেন জিয়া-চ্যাং ও নতুন কমিশনার হুয়াং সুং-জেন-সহ আরও কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাও ছিলেন।

তাই প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়, কাজটি পুলিশের ওপর হামলা করার মতলবেই করা। অবশ্য পরে পুলিশি তদন্তে এর কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

বরং এখন ধারণা করা হচ্ছে, রেস্তোরাঁ মালিক ও স্থানীয় গুন্ডাদের মধ্যে টাকা নিয়ে বিবাদের প্রেক্ষিতে গুন্ডারাই এহেন অপকর্ম সাধন করেছে!

এই ঘটনায় সন্দেহভাজন ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন মুখোশধারী সেই দুই ব্যক্তি, বাইরে প্রহরারত দুই ব্যক্তি এবং একজন গেটওয়ে ড্রাইভার। তাদের সবাই ব্যাম্বু ইউনিয়নের সদস্য।

ব্যাম্বু ইউনিয়ন একটি সন্ত্রাসী সংগঠন, যারা ওই রেস্তোরাঁ মালিকের কাছে টাকা চেয়েছিল। তাদের দাবি, ওই টাকা চাঁদা নয়, বরং পাওনা তাদের। হুমকি-ধমকিতে কাজ না হওয়ায় তাদের দাবিকৃত সেই ‘ঋণের’ টাকা উদ্ধার করতে রেস্তোরাঁ মালিকের ব্যবসার ক্ষতি করার এই ফন্দি আঁটে তারা।

অপরাধীরা তাইপেইয়ের একটি অ্যাকুরিয়াম সাপ্লাই থেকে তুর্কেস্তানীয় প্রজাতির ওই তেলাপোকাগুলো কিনে আনে। অ্যাকুরিয়ামের মাছেদের খাদ্য হিসেবে মূলত এগুলো ব্যবহৃত হয়।

এই ঘটনায় জনগণের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ানোর দায়ে পুলিশ মূল অপরাধীকে আটক করার তৎপরতা চালাচ্ছে।

  • সূত্র: অডিটি সেন্ট্রাল
Previous articleসুয়েজ খাল যেভাবে পরিণত হয়েছিল মুম্বাইয়ের সেক্সরুটে
Next articleটেলিভিশনে দ্বিতীয় দিনের ঈদ আয়োজন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here