ক্যারিয়ার না বিয়ে, কোনটা আগে?

12

রায়হান ভুঞা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ এমবিএ শেষ করে চাকরির জন্য পড়াশোনা করছেন। দুই বছর ধরেই ক্যারিয়ার নিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কিন্তু এখনো চাকরি নামক সোনার হরিণের দেখা পাননি। করোনায় দীর্ঘদিন ধরে আটকে আছে  চাকরির পরীক্ষা।

নতুন করে কোন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিও আসছে না। এদিকে পছন্দের মেয়েটিরও বিয়ের সামাজিক বয়স পার হয়ে যাচ্ছে। আর সবকিছু মিলিয়ে দোটানায় পড়েছে রায়হান। বিয়ে না ক্যারিয়ার কোনটা আগে গুছাবে- তা নিয়েই চিন্তায় পড়েছে। রায়হানের মতো এই রকম সংকটে থাকা তরুণের যেন অভাব নেই। চাকরি আর বিয়ে নিয়ে দোটানায় উচ্চ শিক্ষিতদের অনেকেই।

বিয়ে

চাকরি না বিয়ে- এমন প্রশ্নে এক শ্রেণির মানুষ বিয়েকে বেছে নেন। তাদের মতে, চাকরি তো জীবিকা। জীবিকার ব্যবস্থা একটা না একটা হয়ে যাবে। কিন্তু জীবিকার কথা চিন্তা করে দাম্পত্য জীবন ফেলে রেখে লাভ নেই।

এই ধরণের জীবন দর্শনে বিশ্বাসী মানুষজন মনে করেন, দাম্পত্য বা যৌন জীবনের সাথে চাকরি-বাকরির কোন সম্পর্ক নেই। তাই চাকরি না পেলে বিয়ে করা যাবে না। চাকরি না পেলে বউকে খাওয়াব কি- এই ধরণের চিন্তায় বিচলিত হওয়ার দরকার নেই।

ক্যারিয়ার

আবার এক ধরণের জীবন দর্শনে বিশ্বাসী মানুষ মনে করেন, বিয়ে তো যে কোন সময় করা যায়। পুরুষ মানুষের বিয়ের কোন বয়স নেই। তাই আগে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে। ভালো চাকরি পেতে হবে। প্রতিষ্ঠিত হয়ে সময় নিয়ে ভালো পরিবার দেখে বিয়ে করলেই হল।

এই ধরণের জীবন দর্শনে বিশ্বাসী মানুষজন আবার ভিন্ন মত পোষণ করেন। তারা মনে করেন, মানুষ জীবনের একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর আর প্রতিষ্ঠিত হতে পারে না কিংবা বলা চলে অর্থবিত্তের মালিক হতে পারে না। জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে, সফল হতে, জীবন যাপনের প্রয়োজনে অর্থের অনেক প্রয়োজন হয়। তাই বিয়ের আগে চাকরি নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন এই ধরণের জীবন দর্শনে বিশ্বাসী মানুষজন।    

ভিন্ন মতাদর্শ

আগে ক্যারিয়ার না বিয়ে- এই বিতর্কে ভিন্ন মতাদর্শের লোকজনের দেখাও পাওয়া যায়। এই ধরণের দর্শনে বিশ্বাসী মানুষজন মনে করেন, চাকরি বা বিয়ে নিয়ে এতো বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। জীবন জীবনের নিয়মে চলতে থাকুক। আগে থেকে এতো পরিকল্পনা করে কোন কিছু হয় না। যদি বিয়ে করার প্রয়োজন দেখা দেয়, তাহলে বিয়ে হবে।

আগে চাকরি পেয়ে নিজেকে গুছিয়ে নিয়ে বিয়ে করতে হবে- এই রকম বোকামির মানে হয় না। তাদের মতে, জীবিকা কিংবা দাম্পত্য জীবন কোন কিছুর জন্যই জীবন আটকে থাকে না। পরিস্থিতি বুঝে স্রোতের অনুকূলে গা ভাসিয়ে দিলেই হল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here